শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০, ০৬:২৩ পূর্বাহ্ন

দুই বাংলার সম্পর্ক পদ্মা-মেঘনা-যমুনার মতো: মমতা

Reporter Name
  • প্রকাশিত | শুক্রবার, ২৫ মে, ২০১৮

নিউজ ডেস্ক,শুক্রবার, ২৫ মে ২০১৮:
ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, ‘ এপার বাংলা ওপার বাংলার মধ্যে সম্পর্ক চিরকালীন, সার্বজনীন এবং বিশ্বজনীন। এটা বিশ্ববাংলার একটা রূপরেখা, এখানে কোনো সীমারেখা কাজ করে না। এখানে আমাদের সভ্যতা, আমাদের আন্তরিকতা, আমাদের সংস্কৃতি কাজ করে। ভারত ও বাংলাদেশের সম্পর্ক পদ্মা মেঘনা যমুনার মতো, অবিরল অবিচল। এই সম্পর্ক অনেকদূর গড়াবে।’

শুক্রবার (২৫ মে) ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের শান্তিনিকেতনে বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘বাংলাদেশ ভবন’-এর উদ্বোধনী এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তন অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি উপস্থিত ছিলেন।

শনিবারের বৈঠকের কথা উল্লেখ্য করে মমতা বলেন, ‘হাসিনাজি আসছেন, সঙ্গে ওর ছোট বোন রেহানা আসছেন। বাংলাদেশের অনেক মন্ত্রী আসছেন। আমরা খুব খুশি যে তাঁরা আসছেন। হাসিনাজির সঙ্গে আমার একটি বৈঠক ঠিক করেছি। সেটা আগামী শনিবার উনি বাংলাদেশ ফিরে যাওয়ার আগে হবে। ওইদিন সন্ধেবেলা আমরা দুইজন কথা বলবো। আমাদের এই সম্পর্ক, আমাদের এই আন্তরিকতা চিরকালীন। উনি ব্যক্তিগতভাবে আমাকে খুব ভালোবাসেন।’

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘গত কয়েক বছর আগে ২১ ফেব্রুয়ারি ভাষা আন্দোলনের সময়ে উনি ডেকে নিয়ে গিয়েছিলেন। খুব সম্মান দিয়েছিলেন। শুধু আজ নয়, উনি যখন বাংলাদেশে বিরোধী দলের নেত্রী ছিলেন, তখনও আমার সঙ্গে খুব ভালো সম্পর্ক ছিলো। আজ নয়, চিরকাল। আমাদের সঙ্গে বাংলাদেশের সম্পর্ক চিরকাল থাকবে। বাংলাদেশকে আমার অভিনন্দন। বাংলাদেশ আরো ভালো থাকুক, আরো এগিয়ে চলুক। ভারতবর্ষের এবং বাংলাদেশের আরও উন্নতি হোক, এটা আমরা সব সময়ই চাই।’

ইলিশ মাছ প্রসঙ্গে বলেন, ‘ইলিশ তো আমরাও উৎপাদন করছি। বাংলাদেশ তো দেয়, আমি কেন ইলিশ নিয়ে ঝগড়া করতে যাবো? বাংলাদেশের ইলিশ তো আমরা খাই। সুতরাং দুই দেশের ইলিশ খাবো। দুই বাংলার মিলন ছিলো, আছে, থাকবে। পশ্চিমবাংলার সংস্কৃতি এবং বাংলাদেশের সংস্কৃতির মধ্যে কোনো ও পার্থক্য নেই। আমরা সবাই এক।’




আরো সংবাদ পড়ুন
© All rights reserved &copy | 2016 dhaka24.net
Theme Dwonload From Revehost.com
reve63546565665656245