মঙ্গলবার | ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং |

প্রীতির সঙ্গে বিরোধ : পাঞ্জাবের সাথে সম্পর্কের অবসান শেবাগের

স্পোর্টস ডেস্ক, রবিবার, ৪ নভেম্বর ২০১৮:
প্রথম দুই বছর খেলোয়াড় হিসেবে, পরে তিন বছর মেন্টর হিসেবে আইপিএলের দল কিংস এলেভেন পাঞ্জাবের সাথে ছিলেন ভারতের সাবেক ওপেনার ভিরেন্দর শেবাগ। কিন্তু দলের মালিক প্রীতি জিন্তার সাথে পুরনো বিবাদের জের ধরে পাঁচ বছরের এ সম্পর্কের ইতি টানলেন মারকুটে এ ওপেনার।

শনিবার সন্ধ্যায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে এ খবর জানিয়েছেন শেবাগ নিজেই। ২০১৪ ও ২০১৫ সালের আসরে পাঞ্জাবের হয়ে ২৫টি ম্যাচ খেলেছেন শেবাগ। প্রীতির দলের ঐ দুই মৌসুমে একটি করে সেঞ্চুরি ও ফিফটিতে ২১ গড়ে ৫৫৪ রান করেছেন শেবাগ। পরের তিন মৌসুমে পাঞ্জাবের সাথেই থেকে গিয়েছিলেন তিনি। কাজ করেছেন মেন্টর হিসেবে।

তবে আইপিএলের আসন্ন মৌসুমে আর পাঞ্জাবের সাথে থাকছেন না তিনি। টুইটারে নিজের প্রোফাইলে শেবাগ লিখেন, ‘ সব কিছুরই একটা সমাপ্তি আছে। কিংস এলেভেন পাঞ্জাবের হয়ে আমার অসাধারণ সময় কেটেছে। সেখানে দুই বছর খেলোয়াড় ও তিন বছর মেন্টর হিসেবে ছিলাম। তবে পাঞ্জাবের হয়ে আমার সময়ের সমাপ্তি এখানেই। পাঞ্জাবের সাথে থাকা ভালো সময়গুলোর জন্য আমি দলের প্রতি কৃতজ্ঞ। ভবিষ্যতে দলের জন্য শুভকামনা থাকবে আমার।’

শেবাগ নিজে তার সরে যাওয়ার কারণ সম্পর্কে কিছু না জানালেও, স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলো জানাচ্ছে দলের মালিক প্রীতি জিনতার সাথে বিরোধের কারণেই দল ছেড়েছেন শেবাগ।

আইপিএলের শেষ আসরে রাজস্থান রয়্যালসের বিপক্ষে এক ম্যাচে হারের পর প্রকাশ্য বিবাদে জড়িয়ে পড়িয়েছিলেন প্রীতি এবং শেবাগ। সেখানে সবাই প্রীতিকে দায়ী করলে নিজেকে নির্দোষ দাবী করে প্রীতি বলেছিলেন, ‘ শেবাগ এবং আমার মধ্যে একান্তই ব্যক্তিগত এক আলাপকে কেন্দ্র করে বড় ঘটনা সৃষ্টি করা হচ্ছে এবং দিন শেষে আমি ভিলেন!’

তখনই আঁচ পাওয়া গিয়েছিল শেবাগ ও প্রীতির মধ্যকার অন্তর্কোন্দলের। সে খবরের সুত্র ধরেই ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো জানাচ্ছে বলিউড অভিনেত্রীর সাথে বিরোধের কারণেই পাঞ্জাবের সাথে আর থাকা হচ্ছে না শেবাগের।

fb-share-icon35
fb-share-icon20

Enjoy this blog? Please spread the word :)