সোমবার | ২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং |

১৪৩ রানেই গুটিয়ে গেল বাংলাদেশ

ক্রীড়া প্রতিবেদক,রবিবার, ০৪ নভেম্বর ২০১৮:
ওয়ানডে সিরিজে দুর্দান্ত খেলা ইমরুল কায়েস জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রথম টেস্টের প্রথম ইনিংসে পুরোপুরি ব্যর্থ। দলকে ভরসা দিতে পারেননি লিটন দাস। নাজমুল শান্ত-মাহমুদুল্লাহরা এসেই ফিরে যান। মুমিনুলও আশা দিতে পারেননি। সেট হয়ে ফিরে যান মুশফিকুর রহিম। ব্যাটসম্যানদের এই ব্যর্থতায় জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রথম টেস্টের প্রথম ইনিংসে ১৪৩ রানে অলআউট হয়ে গেছে বাংলাদেশ। প্রথম ইনিংসে ১৩৯ রানের বড় লিড পেয়েছে সফরকারীরা।

জিম্বাবুয়ের প্রথম ইনিংস শেষ হওয়ার পরে ব্যাটে নেমে ২ রান করে মধ্যাহ্ন বিরতীতে যায় দু’দল। এরপর বিরতীর পরেই দলের ৮ রানের মাথায় ব্যক্তিগত ৫ রানে সাতারার বলে বোল্ড হয়ে ফেরেন ইমরুল কায়েস। তার আউটের পরে নিজের ৯ রানে ও দলের ১৪ রানে ফেরেন লিটন দাস। এরপর দলের ১৯ রানের মাথায় ফেরেন নাজমুল হোসেন ও মাহমুদুল্লাহ। নাজমুল হোসেন করেন ৫ রান। অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ কোন রান করতে পারেননি।

এরপর মুমিনুল ও মুশফিক গড়েন ৩০ রানের জুটি। দলের ৪৯ রানের মাথায় ফেরেন মুমিনুল হক। এরপর মুশফিক নিজের ৩১ রানের মাথায় দলের ৭৮ রানে ফিরে যান। ছয় উইকেট হারিয়ে কাঁপছে তখন দল। সেখান থেকে ফলোঅন পার করান আরিফুল হক ও মেহেদি মিরাজ। কিন্তু তারা দলের রান খুব বেশি দুর নিয়ে যেতে পারেননি। আরিফুল ইসলাম দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪১ রান করে অপরাজিত থাকেন। মিরাজ-তাইজুলরা পরে আর তাকে সঙ্গ দিতে পারেননি।

এর আগে প্রথম ইনিংসে ২৮২ রান তুলতে পারে জিম্বাবুয়ে। প্রথম দিন শেষে ৫ উইকেটে ২৩৬ রান নিয়ে দিন শেষ করে জিম্বাবুয়ে। এরপর দ্বিতীয় দিনের প্রথম সেশনে তাদেরকে ২৮২ রানের মধ্যে অলআউট করার কৃতিত্ব বাংলাদেশ বোলারদের। দলের হয়ে তাইজুল ইসলাম নেন ৬ উইকেট। জিম্বাবুয়ের শেষ পাঁচ উইকেটের চারটিই নেন তিনি। এছাড়া অভিষেক টেস্ট খেলতে নামা নাজমুল ইসলাম অপু নেন ২টি উইকেট।

fb-share-icon35
fb-share-icon20

Enjoy this blog? Please spread the word :)