বুধবার | ৩০শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং |

ছাত্রলীগকে ২৪ ঘণ্টার আলটিমেটাম দিলেন সাংবাদিকরা

নিজস্ব প্রতিবেদক | সোমবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮:
বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) তিন সাংবাদিকের ওপর ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের নজিরবিহীন হামলার ঘটনায় জড়িত ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণে ২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি (ডুজা)। অন্যথায় সারাদেশের ক্যাম্পাস সাংবাদিকদের নিয়ে কঠোর কর্মসূচি পালনের হুঁশিয়ারি দেন তারা।

রোববার(১৬ ডিসেম্বর) সমিতির সভাপতি আসিফ ত্বাসীন ও সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হাসান নয়ন এক যুক্ত বিবৃতিতে এ আল্টিমেটাম ও হুঁশিয়ারি দেন। তারা এ হামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেন।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, এ সব ন্যাক্কারজনক ঘটনায় হামলাকারীদের বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও পুলিশের পক্ষ থেকেও কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি। ফলে বিভিন্ন ক্যাম্পাসে সাংবাদিকদের ওপর হামলার ঘটনার পুনরাবৃত্তি হচ্ছে, নষ্ট হচ্ছে স্বাধীনভাবে কাজ করার পরিবেশ। অপরাধীদের বিষয়ে ছাত্রলীগ প্রশাসনের এমন অবস্থান অনাকাক্সিক্ষত ও অনভিপ্রেত।

সাংবাদিক নেতারা ছাত্রলীগের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, বিচারহীনতার সংস্কৃতি থেকে বেরিয়ে এসে বুয়েটের ঘটনায় আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে অপরাধীদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করুন। ছাত্রলীগকে অপরাধীদের জন্য নিরাপদ আশ্রয়স্থল না করে হামলাকারীদের বিচারে কার্যকর ভূমিকা রাখুন।

বিবৃতিতে বলা হয়, গত এক মাসে চারটি বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগ সাংবাদিকদের ওপর হামলা চালিয়েছে। অথচ একটি ঘটনাতেও জড়িতদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। অনেকক্ষেত্রে দায়সারা দুঃখ প্রকাশ করেই তারা ঘটনায় জড়িতদের শাস্তি প্রদান থেকে বিরত থেকেছে।

বিবৃতিতে বলা হয়, গত শনিবার সন্ধ্যায় বুয়েটের শের-এ-বাংলা হলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীকে অপহরণ করে আটকে রাখা হয়েছে এমন তথ্যের ভিত্তিতে সেখানে সংবাদ সংগ্রহে যান দৈনিক কালের কন্ঠের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি মেহেদী হাসান, দৈনিক ইত্তেফাকের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি কবিরুল ইসলাম ও দৈনিক জনকণ্ঠের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার মুনতাসির জিহাদ।

এ সময় ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের কাছে শিক্ষার্থী অপহরণের খবরের বিষয়ে জানতে চাইলে সাংবাদিকদের মারধর করেন। তাদের ব্যবহৃত মোবাইল ফোন, পত্রিকার পরিচয়পত্র ও মানি ব্যাগ নিয়ে যান। সেখান থেকে তাদের নেওয়া হয় হলের ক্রিড়া কক্ষে। প্রায় ৩০ মিনিট ধরে কক্ষটিতে তাদের ওপর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালানো হয়।

এর আগে পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে সাংবাদিকদের ওপর ন্যাক্কারজনক হামলা চালায় ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা।

fb-share-icon35
fb-share-icon20

সময় বাচাঁতে ঘরে বসে কেনা-কাটা

Enjoy this blog? Please spread the word :)