বৃহস্পতিবার | ১লা অক্টোবর, ২০২০ ইং |

নোয়াখালীতে আ.লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ ৫

নোয়াখালী | বৃহস্পতিবার,২ মে ২০১৯:
নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে পাঁচজন গুলিবিদ্ধসহ কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছেন। বুধবার (১ মে) রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার জীরতলী বাজারে সংঘর্ষের ঘটনাটি ঘটে।

গুলিবিদ্ধ পাঁচজনের মধ্যে তিন জনের পরিচয় জানা গেছে। তারা হলেন- স্থানীয় যুবলীগ নেতা মাসুদ চৌধুরী, হৃদয় হোসেন, নাজিমুদ্দিন ও আরাফাত। বাকি দুইজনের নাম-পরিচয় জানা যায়নি। সবাইকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়া অন্যান্য আহতদেরকে বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

হাসপাতালে আহতরা জানান, চলতি বছরের ২৯ মার্চ জিরতলী বাজারের ইজারা (ডাক) ঘোষণা করা হয়। ইজারার দায়িত্ব পান স্থানীয় মন্নান নামের এক ব্যক্তি। পরে ওই বাজারে ইজারার টাকা তোলার দায়িত্ব দেয়া হয় যুবলীগ নেতা মাসুদ চৌধুরীকে।

আওয়ামী লীগ নেতা ও জিরতলী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম মিলন ইজারা নেয়ার বিষয় মানতে রাজি হয়নি। বুধবার যুবলীগ নেতা মাসুদ চৌধুরী ইজারার টাকা তুলতে গেলে চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম বাধা দিলে উভয়পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় চেয়ারম্যান তার শর্টগান থেকে এলোপাতাড়ি গুলি ছুড়লে সংঘর্ষ ব্যাপক আকারে ছড়িয়ে পড়ে। এতে গুলিবিদ্ধসহ উভয় পক্ষের অন্তত ১০জন আহত হয়।

বেগমগঞ্জ থানার ওসি ফিরোজ মোল্লা জানান, বাজারের ইজারার টাকা তোলাকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগ নেতা ও ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম মিলন এবং ইউনিয়ন আ.লীগ সভাপতি দেলওয়ার হোসেন বাদশার সমর্থিতদের মধ্যে এ সংঘর্ঘের ঘটনা ঘটেছে। দীর্ঘদিনই তাদের মধ্যে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দ্বন্দ্ব চলে আসছে বলেও জানান তিনি।

গুলি ছোড়ার প্রসঙ্গে ওসি বলেন, সংঘর্ষের সময় কারা গুলি ছুঁড়েছে তা এখনো নিশ্চিত নয়। তবে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ঘটনায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

fb-share-icon35
fb-share-icon20

সময় বাচাঁতে ঘরে বসে কেনা-কাটা

Enjoy this blog? Please spread the word :)