1. shahinit.mail@gmail.com : dhaka24 : ঢাকা টোয়েন্টিফোর
  2. arifturag@gmail.com : ঢাকা টোয়েন্টিফোর : ঢাকা টোয়েন্টিফোর
  3. sasujan83@gmail.com : ঢাকা টোয়েন্টিফোর : ঢাকা টোয়েন্টিফোর
  4. mdjihadcfm@gmail.com : ঢাকা টোয়েন্টিফোর : ঢাকা টোয়েন্টিফোর
শুক্রবার, ০৬ অগাস্ট ২০২১, ১২:৪৩ পূর্বাহ্ন

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে হচ্ছে জাপানি অর্থনৈতিক অঞ্চল

ঢাকা টোয়েন্টিফোর
  • প্রকাশিত | বৃহস্পতিবার, ৬ জুন, ২০১৯

ডেস্ক রিপোর্ট | বৃহস্পতিবার, ০৬ জুন ২০১৯:
নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে এক হাজার একর জমির ওপর গড়ে উঠবে জাপানি অর্থনৈতিক অঞ্চল। বাংলাদেশ স্পেশাল ইকোনমিক জোন উন্নয়নের লক্ষ্যে ২৬ মে রাজধানীর একটি হোটেলে বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেজা) ও জাপানের সুমিতোমো করপোরেশনের সঙ্গে এ-সংক্রান্ত একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন বেজার মো. সোহেলের রহমান চৌধুরী এবং সুমিতোমো করপোরেশনের ইয়াসুশি ফুকুদা।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব নজিবুর রহমান ও সম্মানিত অতিথি ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সমন্বয়ক (এসডিজি) মো. আবুল কালাম আজাদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব সাজ্জাদুল হাসান, জাইকা বাংলাদেশের সিনিয়র প্রতিনিধি ইয়োশিবুমি বিতো ও বাংলাদেশে জাপান দূতাবাসের মিনিস্টার তাকেশি ইতো। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বেজার নির্বাহী চেয়ারম্যান পবন চৌধুরী।

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলায় এক হাজার একর জমির ওপর জাপানি এ অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে উঠবে। এটি হবে দেশের প্রথম জিটুজিভিত্তিক অর্থনৈতিক অঞ্চল। এ পরিকল্পনাকে সামনে রেখে ৫০০ একর জমি অধিগ্রহণের কাজ এরই মধ্যে শেষ হয়েছে। বাকি অধিগ্রহণের কাজ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

প্রকল্পের প্রাক্কলিত ব্যয় ধরা হয়েছে ৩ হাজার ১৯৫ কোটি ৮১ লাখ টাকা। এছাড়া আরো ২ হাজার ৫৮২ কোটি টাকায় এ অঞ্চল প্রতিষ্ঠার জন্য ফরেন ডিরেক্ট ইনভেস্টমেন্ট প্রমোশন প্রজেক্ট নামে প্রকল্পটি গত ৫ মার্চ একনেকে অনুমোদিত হয়েছে। ওই প্রকল্পে ভূমি উন্নয়ন, সংযোগ সড়ক নির্মাণসহ বিদ্যুৎ ও গ্যাস সংযোগ স্থাপন অন্তর্ভূক্ত রয়েছে। এসব কর্মকান্ড শেষ করে ২০২২ সালের মধ্যে এ অর্থনৈতিক অঞ্চলটি চালু করা সম্ভব হবে বলে সংশ্লিষ্টরা আশা প্রকাশ করেছেন।

বেজা আশা প্রকাশ করে বলছে, এ অর্থনৈতিক অঞ্চল চালু হলে সেখানে প্রায় ২০ বিলিয়ন ডলার সমমূল্যের জাপানি বিনিয়োগ আনা সম্ভব হবে, যার অধিকাংশই হবে জাপানের বিখ্যাত প্রতিষ্ঠানগুলোর। এর ফলে দক্ষ জনশক্তি তৈরি ছাড়াও প্রযুক্তি স্থানান্তরের ক্ষেত্র সম্প্রসারিত হবে। এছাড়া এ অর্থনৈতিক অঞ্চলে শিল্পবর্জ্য অপসারণ করার জন্য স্থাপন করা হবে রিসাইক্লিং প্ল্যান্ট।

fb-share-icon35
56

আরো সংবাদ পড়ুন




© All rights reserved &copy | 2016 dhaka24.net
Theme Customized BY WooHostBD