মঙ্গলবার | ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং |

পাহাড় ধসের ঝুঁকিতে রোহিঙ্গা

টেকনাফ (কক্সবাজার) | বৃহস্পতিবার,০৪ জুলাই ২০১৯:
পাহাড়ের পাদদেশে রোহিঙ্গা বসতিভারী বৃষ্টিতে দুর্ভোগ বেড়েছে কক্সবাজারের উখিয়া- টেকনাফের শরণার্থী শিবিরের রোহিঙ্গাদের। গত সোমবার রাত থেকে মঙ্গলবার রাত ৮টা পর্যন্ত ভারী বৃষ্টিতে শিবিরের অনেক ঝুঁপড়ি ঘরে পানি ঢুকে পড়েছে। ঝড়ো বাতাসে উড়ে গেছে অনেক ঘরের ছাউনি। বৃষ্টি অব্যাহত থাকায় পাহাড়ের পাদদেশে আশ্রয় নেওয়া হাজারো রোহিঙ্গা নর-নারী ভূমিধসের আশঙ্কায় নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছেন। তবে আবহাওয়া অধিদফতর বলছে, কক্সবাজারে ভারী বর্ষণ অব্যাহত থাকতে পারে।

জানা যায়, মিয়ানমারের রাখাইনে সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ওপর দেশটির সেনাবাহিনীর নির্যাতনের ফলে ২০১৭ সালে ২৫ আগস্টের পরে সাত লাখ রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে এসেছেন। পুরনোসহ উখিয়া ও টেকনাফের ৩০টি ক্যাম্পে ১১ লাখের বেশি রোহিঙ্গা অবস্থান করছেন। কয়েকজন রোহিঙ্গা জানান, আগের রাত থেকে শুরু হওয়া ভারী বৃষ্টি ও ঝড়ো বাতাসে উখিয়া-টেকনাফের বিভিন্ন শিবিরের শতাধিক পরিবারের ঘরের ছাউনি উড়ে গেছে। পাহাড় ধসের আশঙ্কায় অন্যত্র আশ্রয় খুঁজছেন অনেকে।

শিবিরজাদিমুড়া শালবন পাহাড়ের পাদদেশে আশ্রয় নেওয়া মোহাম্মদ আবু তাহের জানান, ঘরে পানি ঢুকে পড়ায় আট সদস্যের পরিবারকে নির্ঘুম রাত কাটাতে হয়েছে। পাহাড় ধসের আশঙ্কায় অন্যত্র আশ্রয় খুঁজে নেওয়ার চিন্তা করছেন বলে জানান তিনি। রোহিঙ্গা শিবিরের চেয়ারম্যান রমিদা বেগম জানান, পানি নামলে ঘর স্যাঁতস্যাঁতে হয়ে যায়। তাই বৃষ্টিতে রাতে না ঘুমিয়ে বসে থাকতে হয়। টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ রবিউল হাসান জানান, ভারী বর্ষণে দুর্ঘটনা এড়াতে প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।

fb-share-icon35
fb-share-icon20

Enjoy this blog? Please spread the word :)