বুধবার | ৩০শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং |

লক্ষ্মীপুরে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাংচুর অভিযোগ আ.লীগ নেতার বিরুদ্ধে

লক্ষ্মীপুর | মঙ্গলবার,২৩ জুলাই ২০১৯:
লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার চরশাহী ইউনিয়ন যুবলীগের কার্যালয় ভাংচুরের অভিযোগ উঠেছে। এসময় ঐ কার্যালয়ে থাকা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবিসহ আসবাবপত্র ভাঙচুর করার অভিযোগ উঠেছে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক গোলজার মোহাম্মদের বিরুদ্ধে।

তবে ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ‘এটা ষড়যন্ত্র। যুবলীগ নেতা নিজের অফিস ভাংচুর করে আমার বিরদ্ধে মিথ্যা প্রচারণা চালাচ্ছে।’

সোমবার (২২ জুলাই) গভীর রাতে চরশাহী রফিক মার্কেটে যুবলীগের অস্থায়ী কার্যালয়ে হামলা ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় স্থানীয় যুবলীগ নেতারা চরশাহী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক গোলজার মোহাম্মদকে দায়ী করছেন। তবে পুলিশ বলছে ঘটনাটি সাজানো হতে পারে।

ইউনিয়ন যুবলীগের আহ্বায়ক রেজাউল করিম রিয়াজ বলেন, ‘গোলজার চেয়ারম্যানের নির্দেশেই যুবলীগ কার্যালয়ে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করা হয়েছে। ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য রবিন, জাসদ নেতা সালাউদ্দিন স্বপন, আবদুল, বাবলু ও স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা বাবুল আনসারিকে ভাঙচুর করতে দেখেছে স্থানীয় লোকজন। তারা চেয়ারম্যান গোলজারের অনুসারী।’

তিনি আরও বলেন, ‘হামলাকারীরা দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি এবং কার্যালয়ের চেয়ার টেবিল টেলিভিশনসহ আসবাবাপত্র ভাঙচুর করেছে। পরিকল্পিত এ হামলার ঘটনা দুঃখজনক। এ ঘটনায় থানায় মামলা করা হবে বলেও জানান তিনি।’

অভিযোগ অস্বীকার করে চরশাহী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গোলজার মোহাম্মদ বলেন, ‘কার্যালয়টি রিয়াজের ব্যক্তিগত, যুবলীগের নয়। যুবলীগ নেতা রিয়াজ নিজেই কার্যালয় ভাঙচুর করিয়েছে। আমার কোনো লোক এই ঘটনায় জড়িত নয়। ওই কার্যালয়ে তারা বিভিন্ন অপকর্ম করে বলে জনশ্রুতি রয়েছে।’

জানতে চাইলে চন্দ্রগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক তদন্ত মোহাম্মদ মফিজ উদ্দিন বলেন, ‘খবর পেয়ে ঘটনাস্থল গিয়েছি। ভাঙচুরের ঘটনাটি সাজানো হতে পারে। এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত কেউ অভিযোগ করেননি।’

fb-share-icon35
fb-share-icon20

সময় বাচাঁতে ঘরে বসে কেনা-কাটা

Enjoy this blog? Please spread the word :)