শুক্রবার | ২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং |

কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎ, মান্নানসহ ১২ জনের বিরুদ্ধে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক | বৃহস্পতিবার, ৮ই আগস্ট, ২০১৯:
আর্থিক খাতের অন্যতম প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ ইন্ড্রাস্ট্রিয়াল ফাইন্যান্স কোম্পানি লিমিটেড (বিআইএফসি) থেকে প্রায় অর্ধশত কোটি টাকা আত্মসাত করেছেন বিকল্পধারা বাংলাদেশের মহাসচিব মেজর (অব.) আবদুল মান্নান। এই অভিযোগে প্রতিষ্ঠানটির সাবেক চেয়ারম্যান আবদুল মান্নানসহ ১২ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

দুদকের উপ-পরিচালক প্রণব কুমার ভট্টাচার্য বিষয়টি সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেন।

বৃহস্পতিবার (৮ আগস্ট) দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয় ঢাকা-২ এর উপপরিচালক এস এম সাহিদুর রহমান বাদী হয়ে দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয় ঢাকা-১-এ মামলা দু’টি দায়ে করেন। মামলা নম্বর ১০ ও ১১। দুই মামলায় আসামিদের বিরুদ্ধে ৪৩ কোটি ১৫ লাখ ২ হাজার ২৯৪ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ আনা হয়েছে।

১০ নম্বর মামলায় মেজর (অব.) এম এ মান্নান ছাড়া আরও যাদের আসামি করা হয়েছে তারা হলেন, ডি আফরোজ সোয়েটার ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক গোলাম জিলানী দিদার, বিআইএফসি’র সাবেক এমডি মো. মাহমুদ মালিক ও ইনামুর রহমান, সাবেক সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট ও হেড অব বিজনেস সৈয়দ ফকরে ফয়সাল, সাবেক এভিপি অ্যান্ড ইউনিট হেড আহমেদ করিম চৌধুরী, সাবেক সিনিয়র অফিসার (বিজনেস) মোহাম্মদ নিজামউদ্দিন, সাবেক অফিসার মো. সৈকত আজাদ, সাবেক প্রিন্সিপাল অফিসার তানিজা মাজেদ, সাবেক অফিসার মাসুদ-উল-রেজা চৌধুরী ও সাবেক সিনিয়র অফিসার ও রিজিওনাল ম্যানেজার আফ্রিদা আহসান।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, আসামির পরস্পর যোগসাজস করে বিআইএফসি থেকে ডি’ আফরোজ সোয়েটার ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের নামে দুটি ঋণ চুক্তির আওতায় বোর্ড সভায় অনুমোদনের অতিরিক্ত অর্থ উত্তোলন করে ২৮ কোটি ৮৪ লাখ ৩৫ হাজার ২৯৪ টাকা আত্মসাৎ করেছেন।

১১ নম্বর মামলায় এম এ মান্নান ছাড়াও অন্য যাদের আসামি করা হয়েছে তারা হলেন—ক্লিক টু ডিজাইনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. নাজমুল বাশার, বিআইএফসি’র সাবেক এমডি মো. মাহমুদ মালিক ও ইনামুর রহমান, সাবেক সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট ও হেড অব বিজনেস সৈয়দ ফকরে ফয়সাল, সাবেক এভিপি অ্যান্ড ইউনিট হেড আহমেদ করিম চৌধুরী, সাবেক সিনিয়র অফিসার (বিজনেস) মোহাম্মদ নিজামউদ্দিন ও সাবেক অফিসার মো. সৈকত আজাদ।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, আসামিরা যোগসাজশ করে বিআইএফসি থেকে ক্লিক টু ডিজাইন লিমিটেডের নামে দুটি ঋণ চুক্তির আওতায় বোর্ডসভায় অনুমোদনের অতিরিক্ত অর্থ উত্তোলন করে ১৪ কোটি ৩০ লাখ ৬৭ হাজার টাকা টাকা আত্মসাৎ করেছেন।

মেজর (অব.) আবদুল মান্নান সাবেক রাষ্ট্রপতি এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরীর নেতৃত্বাধীন বিকল্প ধারার মহাসচিব। প্রথমে সরকারবিরোধী বড় ধরনের প্লাটফোর্ম গড়ে তুলেও শেষ পর্যন্ত আলোচনা-সমালোচনার জন্ম দিয়ে নৌকা প্রতীক নিয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হোন মান্নান।

fb-share-icon35
fb-share-icon20

Enjoy this blog? Please spread the word :)