বুধবার | ৩০শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং |

মির্জাপুর থেকে বঙ্গবন্ধু সেতু পর্যন্ত ৪০ কি.মি রাস্তায় যানজট, ঈদযাত্রায় ভোগান্তি

নিজস্ব প্রতিবেদক | শুক্রবার, ৯ আগস্ট ২০১৯:
ঈদুল আজহা ঘিরে নাড়ির টানে বাড়ি ফিরছে মানুষ। আর এই বাড়ি ফেরাকে কেন্দ্র করে দেশের প্রায় প্রতিটি সড়ক-মহাসড়কেই যানজটের মাত্রা তীব্রতর হচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার মধ্যরাত থেকে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে মির্জাপুর থেকে বঙ্গবন্ধু সেতু পর্যন্ত ৪০ কি.মি রাস্তায় যানজটে চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন হাজার হাজার ঘরমুখো মানুষ। এ প্রতিবেদন লিখা পর্যন্ত ১২ ঘণ্টায়ও ওই রাস্তায় স্বাভাবিক হয়নি যান চলাচল।

পুলিশ জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার রাতে উত্তরবঙ্গগামী গাডড়ির চাপ বেড়ে যাওয়ায় মধ্যরাত থেকে মহাসড়কের বিভিন্ন পয়েন্টে যানজটের সৃষ্টি হয়। এছাড়া মহাসড়কের পুংলি, এলেঙ্গা ও রাবনা বাইপাস এলাকায় দুর্ঘটনায় গাড়ি বিকল হয়ে যানজট আরো তীব্র আকার ধারণ করেছে। যানজট নিরসনে জেলা পুলিশের ৭ শতাধিক সদস্য কাজ করে যাচ্ছে।

এদিকে ঈদ ঘিরে রাজধানীর সব বাস টার্মিনাল, রেলস্টেশন ও সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনালে ঈদযাত্রীদের ঢল নেমেছে। ঈদুল আজহার আগে সর্বশেষ কর্মদিবস শেষে গতকাল বিকেল থেকে এই ভিড় ছিল উপচে পড়া। অপেক্ষার প্রহর গুণে, প্রচণ্ড ভিড় ঠেলে বাসে, ট্রেনে উঠতে হয়েছে ঘরমুখোদের।

গাবতলী বাস টার্মিনালে গতকাল দুপুরের পর থেকে বিভিন্ন পরিবহনের বাসের অপেক্ষায় থাকা যাত্রীর সংখ্যা প্রচুর। বৈরী আবহাওয়া ও তুমুল বৃষ্টিতে বাইপাইল, সাভারসহ বিভিন্ন স্থানে তীব্র যানজটে ফিরতি বাস আটকে ছিল।

শুধু মহাসড়কেই নয়, বাস ও লঞ্চ টার্মিনাল এবং রেলস্টেশনে যেতে বাসা থেকে রওনা হয়ে মিরপুর-১, মিরপুর-১২, পল্লবী, কালশী, টেকনিক্যাল, কল্যাণপুরসহ রাজধানীর বিভিন্ন প্রান্তে প্রচণ্ড যানজটে আটকা পড়ে যাত্রীরা। অনেকে গণপরিবহন না পেয়ে হেঁটেই ছুটতে থাকে গন্তব্যে।

fb-share-icon35
fb-share-icon20

সময় বাচাঁতে ঘরে বসে কেনা-কাটা

Enjoy this blog? Please spread the word :)