শুক্রবার | ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং |

ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ: শাটল ট্রেন বন্ধ, অবরোধের ডাক

নিজস্ব প্রতিবেদক | রবিবার, ০১ সেপ্টেম্বর ২০১৯:
মধ্যরাতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) ছাত্রলীগের বিজয় ও সিএফসি গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় সকাল থেকে ক্যাম্পাস আরও উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে। ট্রেন ও বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে। এছাড়া ক্যাম্পাসে অনির্দিষ্টকালের জন্য অবরোধের ডাক দিয়েছে চাবি ছাত্রলীগের একাংশ।

সংঘর্ষের ঘটনাকে কেন্দ্র করে রবিবার (১ সেপ্টেম্বর) সকালে নগরের বটতলী রেল স্টেশনে অবস্থান করা দুটি শাটল ট্রেনের হোসপাইপ কেটে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এতে করে সকাল সাড়ে ৭টা ও ৮টার নির্ধারিত ট্রেন দুটি ক্যাম্পাসের উদ্দেশে আসতে পারেনি। একইসঙ্গে ট্রেনের লোকো মাস্টারকে অপহরণ করার কিছু সময় পর তাকে ছেড়ে দেয়া হয়।

চট্টগ্রাম রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

অন্যদিকে রবিবার (১ সেপ্টেম্বর) ভোরে বিশ্ববিদ্যালয় পরিবহনের সকল শিক্ষক ও স্টাফ বাসের তালায় সুপারগ্লু লাগিয়ে দেয়ায় বাস চলাচলও বন্ধ রয়েছে।

এছাড়া অছাত্র ও হামলার পরিকল্পনাকারী চবি ছাত্রলীগের সভাপতি রেজাউল হক রুবেলকে ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কার না করা পর্যন্ত অনির্দিষ্টকালের অবরোধের ডাক দিয়েছে চবি ছাত্রলীগের একাংশ।

উল্লেখ্য, শনিবার মধ্যরাতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) শাখা ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে ছাত্রলীগের ৫ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।

বিবাদমান দুটি পক্ষ হচ্ছে, বিজয় ও সিএফসি গ্রুপ। তারা শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরীর অনুসারী। বিজয় পক্ষের নেতৃত্বে আছেন সাবেক যুগ্ম সম্পাদক এইচএম তারেকুল ইসলাম ও সিএফসি পক্ষে চবি ছাত্রলীগের সভাপতি রেজাউল হক রুবেল।

জানা গেছে, মধ্যরাতে সোহরাওয়ার্দী হল থেকে এ সংঘাতের এ সূত্রপাত। যা পরে আলাওল ও এএফ রহমান হলেও ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া চলে। পরে এক রাউন্ড গুলি বর্ষণের শব্দও শোনা যায় বলে জানা গেছে।

fb-share-icon35
fb-share-icon20

Enjoy this blog? Please spread the word :)