মঙ্গলবার | ২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং |

জেল-জরিমানার পরেও থামছে না ট্রেনের ছাদে ঝুঁকিপূর্ণ ভ্রমণ

নিউজ ডেস্ক | সোমবার, ২ সেপ্টেম্বর ২০১৯:
জেল-জরিমানা করা হলেও থামছে না ট্রেনের ছাদে বা ইঞ্জিনে ঝুঁকিপূর্ণ ও বিপজ্জনক ভ্রমণ। ট্রেনের ছাদে ও ইঞ্জিনে ভ্রমণের অভিযোগে ঢাকায় ১০ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

স্টেশন কর্মকর্তারা জানান, ঝুঁকিপূর্ণ ও বিপজ্জনক ভ্রমণ ঠেকাতে কঠোর পদক্ষেপ নিচ্ছেন তারা। অন্যদিকে প্রকাশ্যে ধূমপান ও জনাকীর্ণ স্টেশনে ঝাড়ু দেয়ায় অস্বস্তিতে যাত্রীরা। জরিমানা করার পরেও ট্রেনের ছাদে বা ইঞ্জিনে ভ্রমণ থামছেই না। আজ সোমবার সকালেও রাজধানীর বিমানবন্দর স্টেশন থেকে ছাদে ওঠার দায়ে চারজনকে আটক করেছে পুলিশ। বিমানবন্দর রেলওয়ে স্টেশনে ট্রেনের ছাদে ভ্রমণে নিষেধ করা হচ্ছে মাইকিং করে। তবু চলছে ঝুঁকিপূর্ণ ও বিপজ্জনক ভ্রমণ। বিনা টিকেট, ট্রেনের ছাদ ও ইঞ্জিনে ঝুঁকিপূর্ণ এবং বিপজ্জনক ভ্রমণের অভিযোগে ৩২ জনকে জরিমানা ও আদালতে পাঠিয়েছে ঢাকা রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনী।

ট্রেনের ছাদে-ইঞ্জিনে ঝুঁকিপূর্ণ বা বিপজ্জনক ভ্রমণে নিষেধের আইন ১৮৯০ সালের। পুরান আইনের প্রয়োগ নতুনভাবে করতে ঘোষণা দিয়ে কঠোর হয়েছে রেলওয়ে প্রশাসন। আটক চারজনকে পাঠানো হয়েছে কারাগারে। স্টেশনের দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তারা বলছেন, যাত্রীদের সতর্ক করার পাশাপাশি কঠোর পদক্ষেপ নিচ্ছেন তারা। অন্যদিকে প্রকাশ্যে ধূমপান ও পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের অসচেতনতায় বেড়েছে যাত্রীদের দুর্ভোগ। যাত্রীদের সবধরনের ভোগান্তি ও অস্বস্তি রোধে রেলওয়ে প্রশাসনকে কঠোর হওয়ার দাবি জানিয়েছেন যাত্রীরা।

-সূ্ত্র : আরটিভি অনলাইন

fb-share-icon35
fb-share-icon20

Enjoy this blog? Please spread the word :)