মঙ্গলবার | ২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং |

ফের উত্তাল সাগর, ৩ নম্বর সতর্কতা, পাহাড় ধসের আশঙ্কা

নিজস্ব প্রতিবিদক | বৃস্পতিবার, ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯:
উত্তর বঙ্গোপসাগরে বায়ুচাপের তারতম্যের আধিক্যের কারণে উত্তাল হয়ে উঠছে সাগর। আর তাতে করে দেশের উপকূলীয় এলাকা, উত্তর বঙ্গোপসাগর ও সমুদ্রবন্দরগুলোর ওপর দিয়ে ঝড়োহাওয়া বয়ে যাওয়ার কথা জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর।

এদিকে ভারি বর্ষণের কারণে পাহাড়ে ভূমিধসের আশঙ্কা বাড়ছে। সমুদ্রবন্দরগুলোকে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্কসংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

আবহাওয়া অধিদফতর সূত্র জানিয়েছে, মৌসুমি বায়ু সক্রিয় থাকায় বৃহস্পতিবার দুপুর ১টা পর্যন্ত চট্টগ্রাম বিভাগের কোথাও কোথাও ভারি থেকে অতিভারি বর্ষণ হতে পারে। তাই পাহাড়ধসের আশঙ্কাও বাড়ছে।

সাধারণত, ৪৪ থেকে ৮৮ মিলিমিটার বৃষ্টিপাতকে ভারি এবং ৮৯ মিলিমিটারের বেশি বর্ষণকে অতিভারি বর্ষণ বলা হয়।

গেল মঙ্গলবার সকাল ১০টা পর্যন্ত রংপুর, ময়মনসিংহ, সিলেট, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের কোথাও কোথাও ভারী (৪৪-৮৮ মিমি) থেকে অতিভারী (>৮৯ মিমি) বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে আবহাওয়াবিদ মো. ওমর ফারুক জানিয়েছেন, উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় বায়ুচাপের তারতম্যের আধিক্য বিরাজ করছে। বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা, উত্তর বঙ্গোপসাগর ও সমুদ্রবন্দরগুলোর ওপর দিয়ে ঝড়োহাওয়া বয়ে যেতে পারে।

এরইমধ্যে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্কসংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছধরা ট্রলার ও নৌকাগুলোকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে।

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের জায়গায়; ঢাকা, খুলনা ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় এবং রাজশাহী, রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ী দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে।

আগামী শনিবার নাগাদ বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ধীরে ধীরে কমে আসতে পারে বলে আশা প্রকাশ করা হয়েছে।

fb-share-icon35
fb-share-icon20

Enjoy this blog? Please spread the word :)