1. shahinit.mail@gmail.com : dhaka24 :
  2. arifturag@gmail.com : ঢাকা টোয়েন্টিফোর : ঢাকা টোয়েন্টিফোর
  3. sasujan83@gmail.com : ঢাকা টোয়েন্টিফোর : ঢাকা টোয়েন্টিফোর
বৃহস্পতিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২০, ০৪:৫৩ অপরাহ্ন

‘সুইস ব্যাংকে কোটি কোটি টাকা কাদের, ক্যাসিনো বসিয়ে লুটপাট করছে কারা?’

Reporter Name
  • প্রকাশিত | বৃহস্পতিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক | বৃহস্পতিবার ,২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯:
বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘আওয়ামী লীগ সরকার লুটপাট করে সব টাকা সুইস ব্যাংকে পাঠিয়েছে। গত কয়েক বছরে সুইস ব্যাংকে বাংলাদেশ থেকে সবচেয়ে বেশি টাকা জমা হয়েছে। এই টাকা কারা পাঠিয়েছে, ক্ষমতায় কারা? কারা আজকে মেগা প্রজেক্টের নামে দেশে ‘ক্যাসিনো’ বসিয়ে রাষ্ট্রীয় টাকা লুটপাট করছে? ক্যাসিনো থেকে যাদের ধরা হয়েছে সবাই যুবলীগের নেতা। তারা বলছে, যারা ধরা পড়েছে তারা সবাই নাকি বিএনপির নেতা। আপনারা ১২ বছর ক্ষমতায়, তাহলে এতদিন কি আঙুল চুষছেন আপনারা?’

বৃহস্পতিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় ময়মনসিংহ নগরীর কৃষ্ণচূড়া চত্বরে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে বিভাগীয় সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘১৯৭১ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে রক্ষীবাহিনী তৈরি করে নির্যাতন চালিয়েছিল। এখন নেতাকর্মীদের তুলে নিয়ে গুম-খুন করা হচ্ছে, পায়ে গুলি করা হচ্ছে। তবুও কারও মধ্যে ভয় নেই, কেউ বিএনপি ছেড়ে যাইনি, এটাই বিএনপি। আমাদের সংগ্রাম কোনো দলকে ক্ষমতায় বসানো নয়। আমাদের সংগ্রাম গণতন্ত্রের মুক্তির সংগ্রাম, সংবিধান রক্ষার সংগ্রাম, দেশের পতাকা সমুন্নত রাখা, মা-বোনের নিরাপত্তার সংগ্রাম।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, গণতন্ত্রের জন্য বেগম খালেদা জিয়া তার ছোট ছেলে কোকোকে হারিয়েছেন। বড় ছেলে লন্ডনে। অথচ খালেদা জিয়ার বাড়ি থেকে উচ্ছেদ করা হয়েছে। তিনি গণতন্ত্রের সংগ্রামের জন্য ১৮ মাস ধরে কারাগারে বন্দি। গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য আজকের এই বিভাগীয় মহাসমাবেশ বাধাগ্রস্ত করতে বেলা ১১টায় সমাবেশের অনুমতি দিয়েছে প্রশাসন। এরপরও গণতন্ত্রের মুক্তির জন্য, খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য লাখো মানুষের সমাগম হয়েছে। কিন্তু আমাদের লক্ষ্য জনসমাগম নয়, এক নায়কতন্ত্রের সরকারকে জানিয়ে দেয়া আমরা দেশনেত্রীর মুক্তি চাই।

মির্জা ফখরুল বলেন, দেশের মানুষ খালেদা জিয়ার মুক্তি চায়। প্রশাসনের শত বাধা, গ্রেফতারসহ নানা প্রতিবন্ধকতা সত্ত্বেও ময়মনসিংহে লাখো মানুষের সমাবেশ সেটাই প্রমাণ করে। তাই, সংসদ ভেঙে দিয়ে অবিলম্বে নিরপেক্ষ কমিশনের অধীনে নির্বাচন দিতে হবে।

তিনি সরকারের সমালোচনা করে বলেন, ‘ভোট-ডাকাতি করে নির্বাচনের আগের রাতেই ভোট লুট করে নিয়ে গেছেন, এটা ক্যাসিনোর চেয়েও বড় অপরাধ। ব্যাংক লুট করেছেন, নির্বাচনের আগে ১০ টাকা করে চাল খাওয়াবেন প্রতিশ্রুতি দিয়ে ৪০ টাকা দরে খাওয়াচ্ছেন, বিনা পয়সায় সার দেওয়ার কথা বলে প্রতারণা করেছেন। এসবের জবাব দিতে হবে।’

ময়মনসিংহ (দক্ষিণ) জেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অধ্যাপক এ কে এম শফিকুল ইসলাম সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আবু ওয়াহাব আকন্দ ও উত্তর জেলা বিএনপির যুগ্ম-আহ্বায়ক মোতাহার হোসেন তালুকদারের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশারফ হোসেন, মীর্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, নজরুল ইসলাম খান, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন, উপদেষ্টা ফজলুর রহমান, যুগ্ম-মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, ঢাকা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুর রহমান মিলন, ময়মনসিংহ বিভাগের সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স প্রমুখ।

আরো সংবাদ পড়ুন
© All rights reserved &copy | 2016 dhaka24.net
Theme Customized BY WooHostBD