শুক্রবার | ৩রা জুলাই, ২০২০ ইং |

বাঘাইছড়িতে জনসংহতির সাবেক কর্মীকে হত্যা

রাঙামাটি :
রাঙামাটির বাঘাইছড়িতে আবারো একটি আঞ্চলিক দলের এক সাবেক কর্মীকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। বুধবার রাত আনুমানিক নয়টার দিকে উপজেলার রূপকারি ইউনিয়নে নিজ বাসায় একদল সশস্ত্র দুবৃত্ত গুলি করে হত্যা করে। এসময় তার স্ত্রীও আহত হয়েছে বলে জানিয়েছে স্থানীয়রা।

নিহত ব্যক্তির নাম ভূষন চাকমা দুদোরবু (৪০)। সে দিন পনের আগে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (এমএনলারমা)’র সহযোগী সংগঠন পার্বত্য চট্টগ্রাম যুব সমিতি থেকে বহিষ্কৃত হয়েছে বলে জানিয়েছে সংগঠনটির বাঘাইছড়ি উপজেলা কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক যোশি চাকমা। তবে সে সংগঠনটির সমর্থক বলেও নিশ্চিত করেছেন যোশি।

যোশি চাকমা জানিয়েছেন, ভূষণ চাকমা রাতে স্ত্রী সহ এক প্রতিবেশীর বাড়িতে বেড়াতে গিয়েছিলেন। সেখানে রূপকারি বিজয়ঘাট এলাকায় নদী পাড় হয়ে এসে সন্তু লারমার নেতৃত্বাধীন জনসংহতি সমিতির সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা তাকে গুলি করে হত্যা করে। এসময় তার স্ত্রীর শরীরেও গুলি লেগেছে বলে জেনেছি।

পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (এমএনলারমা)’র অন্যতম শীর্ষ নেতা ও বাঘাইছড়ি উপজেলা চেয়ারম্যান সুদর্শন চাকমা জানিয়েছেন, নিহত ভূষন আমাদের সমর্থক। তাকে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে সন্তু লারমার নেতৃত্বাধীন জনসংহতি সমিতি নির্মমভাবে হত্যা করেছে। আমরা এই হত্যাকাণ্ডের
সাথে জড়িতদের গ্রেফতার ও বিচার দাবি করছি।

বাঘাইছড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এম এ মনজুর হক জানিয়েছেন, ফোনে বিষয়টি জেনেছি। নির্মল চাকমা ছেলে ভূষন চাকমা দুদোরবু (৪৫) নামের এক জেএসএস (এমএনলারমা) সমর্থককে গুলি করে হত্যা করেছে অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা। তার মূল বাড়ি বঙ্গলতলী হলেও সে পরিবার নিয়ে রূপকারিতে থাকতো। তার স্ত্রীও গুলিতে আহত হয়েছে বলে শুনেছি। ঘটনাস্থলে পুলিশ যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে।

এবিষয়ে জানার জন্য সন্তু লারমার নেতৃত্বাধীন পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির একাধিক নেতার সাথে যোগাযোগ করেও তাদের কারো মোবাইল খোলা পাওয়া যায়নি।

fb-share-icon35
fb-share-icon20

সময় বাচাঁতে ঘরে বসে কেনা-কাটা

Enjoy this blog? Please spread the word :)