শুক্রবার | ৫ই জুন, ২০২০ ইং |

নরসিংদীতে এসএ টিভির সাংবাদিককে পিটিয়ে আহত করেছে চেয়ারম্যান

ঢাকা২৪.নেট | নরসিংদী:
নরসিংদীতে রায়পুরা উপজেলার আমিরগঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যানের হামলায় গুরতর আহত হয়েছে এক সাংবাদিক। বৃহস্পতিবার(২৩ এপ্রিল) বিকালে এসএ টিভির নরসিংদী জেলা প্রতিনিধি সজল ভূইয়া পেশাগত দায়িত্য পালনের সময় ইউপি চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন খান ও তার সাঙ্গু পাঙ্গুরা ওই সাংবাদিককে পিটিয়ে আহত করেন। পরে সজল ভূইয়াকে সন্ধা ৬টার দিকে আমিরগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ কার্যালয়ের সামনে থেকে সহকর্মীরা উদ্ধার গুরুতর আহতাবস্থায় নরসিংদী সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন।

আহত সজল ভূইয়া জানান, ঢাকা থেকে আসা এশিয়ান টেলিভিশনের রিপোর্টার নরসিংদীতে আসেন, চাল চুরি, ১০টাকার চাল বিক্রয় ও কার্ডধারী সুবিধাভূগীদের নিয়ে প্রতিবেদন করার জন্য। ঢাকা থেকে আসা রিপোর্টার তার পূর্ব পরিচিত হওয়ায় তাকে বিভিন্ন স্থানে নিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে সহযোগিতা করছিলেন। এরই প্রেক্ষিতে সন্ধ্যা ৬টার দিকে ওই রিপোর্টার আমিরগঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যানের সাক্ষাৎকার নিতে যায়। সাক্ষাৎকার নিতে পৌঁছলে এসময় আমিরগঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন খান, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি বাশার, সাধারণ সম্পাদক শরীফ ও রুবেল, নোয়াব, শহীদসহ প্রায় ২০জন সন্ত্রাসী তাকে ওই সজল ভূইয়াকে গাড়ি থেকে নামিয়ে এলোপাথারি পিটিয়ে তাকে রক্তাক্ত জখম করে। পরে ওই সাংবাদিকের সাথে থাকা লোকজন তাকে উদ্ধার করে নরসিংদী সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়ার জন্য নিয়ে আসেন।

অভিযুক্ত ইউপি চেয়ারম্যান নাছির নাসির উদ্দিন খানের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমরা বিকেল বেলায় আমিরগঞ্জ আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে বসে কথা বলতে ছিলাম। হঠাৎ সাংবাদিক সজল ভুইয়া কয়েকজন নেশাগ্রস্থ লোক নিয়ে অতর্কিতভাবে মামলা চালায়। এতে আমাদের লোকও আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি আছে। তারা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে বঙ্গবন্ধুর ছবিও ভাংচুর করেছে বলে জানান ইউপি চেয়ারম্যান।

পুলিশ জানিয়েছে অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উল্লেখ্য, সজল ভূইয়া আমিরগঞ্জ ইউনিয়নের করিমগঞ্জে একটি এলপিজি ফিলিং স্টেশন নির্মান করছে। সেখান থেকে বিভিন্ন সময় চাঁদা দাবী করত চেয়ারম্যান। তাকে চাঁদা না দেয়ায় বিভিন্ন সময় ছাত্রলীগের নেতাসহ সন্ত্রাসী বাহিনী পাঠিয়ে কাজ বন্ধ করে দিত। এছাড়া এর আগে একবার সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে নির্মানাধিন প্রতিষ্ঠানে সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে হামলা চালানোর পর এসএ টিভির ক্যামেরাম্যান আহত হয়। এব্যাপারে রায়পুরা থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এর কিছুদিন পর এসএ টিভির জেলা প্রতিনিধি সজল ভূইয়াকে মেরে ফেলার হুমকি দেয়া হয়। এর প্রেক্ষিতে নরসিংদী আদালতে আমিরগঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন খানকে প্রধান আসামী করে একটি মামলা দায়ের করা হয়।
এরই প্রেক্ষিতে তার উপর এই হামলার ঘটনা ঘটেছে বলে জানান তিনি।

fb-share-icon35
fb-share-icon20

সময় বাচাঁতে ঘরে বসে কেনা-কাটা

Enjoy this blog? Please spread the word :)