রবিবার | ৭ই জুন, ২০২০ ইং |

বাগেরহাট পালিয়ে আসা কিশোরের করোনা পজেটিভ, বাড়ী লকডাউন

বাগেরহাট | ঢাকা২৪ডটনেট:
ঢাকা হৃদরোগ ইন্সটিটিউটে চিকিৎসাধিন অবস্থায় পালিয়ে আসা করোনা পজিটিভ কিশোর (১৩) এখন বাগেরহাট সদরে তার নিজ বাড়িতে অবস্থান করছে।

বুধবার (২৯ এপ্রিল) দুপুরে বাগেরহাট জেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগ ঐ কিশোরের বাড়িসহ দুটো বাড়ি লকডাউন করেছে। নতুন করে ওই কিশোরসহ তার সংস্পর্শে আসা ১৪ জনের নমুনা সংগ্রহ করেছে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। তাদের নমুনা খুলনা মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে বলে জানিয়েছেন বাগেরহাটের সিভিল সার্জন ডাঃ কেএম হুমায়ুন কবির।

জানাযায়, কয়েকদিন আগে বাগেরহাট থেকে চিকিৎসার জন্য এক কিশোরকে ঢাকা হৃদরোগ ইন্সটিটিউটে নিয়ে যায় তার পরিবার।সেখানে ভর্তি করেন তারা। চিকিৎসার এক পর্যায়ে করোনা ভাইরাস শনাক্ত কি না তার জন্য নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়। পরীক্ষায় জানাযায় ওই কিশোর করোনা পজেটিভ।রিপোর্ট পাওয়ার আগেই চিকিৎসকদের না জানিয়ে ওই কিশোরের পরিবার চলে আসে হাসপাতাল থেকে।বিষয়টি জানিয়ে হৃদরোগ ইন্সটিটিউট কর্তৃপক্ষ বাগেরহাট জেলা প্রশাসককে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য চিঠি দিয়েছেন।

এদিকে করোনা পজেটিভ ওই কিশোরের সংষ্পর্শে আসা ঢাকার জাতীয় হ্নদরোগ ইনষ্টিটিউট ও হাসপাতালে কর্মরত ১৯ জন চিকিৎসক ও ৩৩ জন নার্সকে কর্তৃপক্ষ কোয়ারেন্টাইনে নিয়েছে। ওই হাসপাতালের এক চিকিৎসকও আক্রন্ত হয়েছে ওই কিশোরের সংস্পর্শে আসায় এমন খবর উঠেছে।

বাগেরহাটের সিভিল সার্জন ডা. কে এম হুমায়ুন কবির বলেন, ১৩ এপ্রিল হ্নদরোগের চিকিৎসা করাতে বাগেরহাট থেকে এক ব্যক্তি তার কিশোর ছেলেকে নিয়ে জাতীয় হ্নদরোগ ইনষ্টিটিউট হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১৯ এপ্রিল ওই কিশোরের শরীরে করোনা ভাইরাসের উপসর্গ দেখা দেয়। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তার নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য আইইডিসিআরে পাঠায়।

রিপোর্ট আসার আগেই গত ২৬ এপ্রিল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে না জানিয়ে ওই কিশোরকে নিয়ে তার পরিবার পালিয়ে বাগেরহাটে চলে আসেন। মঙ্গলবার আইইডিসিআরের পরীক্ষায় তার শরীরে করোনা পজেটিভ শনাক্ত হয়। করোনা পজেটিভের কথা ফোন করে ওই কিশোরের বাবাকে জানায় হ্নদরোগ ইনষ্টিটিউট কর্তৃপক্ষ। বিষয়টি জানার পরে ওই কিশোরের পিতা তাদের অবস্থান জানাতে অস্বীকৃতি জানান। বুধবার দুপুরে প্রশাসনের সহযোগিতায় তাদের সন্ধান পেয়ে সেখানে যাই। সেখানে গিয়ে করোনা আক্রান্ত কিশোরের শারীরিক অবস্থা পরীক্ষা করা হয়। কিশোরটি এখনও সুস্থ্য স্বাভাবিক রয়েছে। তার চিকিৎসা বাড়ি রেখেই দেয়া হবে।

তিনি আরও বলেন, আমরা নতুন করে ওই কিশোরসহ তার সংস্পর্শে আসা ১৪ সদস্যের নমুনা সংগ্রহ করেছি। নমুনা খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পিসিআর মেশিনে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে। ওই কিশোরের বাড়িসহ দুটি বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে।

fb-share-icon35
fb-share-icon20

সময় বাচাঁতে ঘরে বসে কেনা-কাটা

Enjoy this blog? Please spread the word :)