শুক্রবার | ৫ই জুন, ২০২০ ইং |

‘মসজিদে নামাজ পড়ায় বাধা নেই’, ঘোষণার একদিন পরই সুর পাল্টালেন মেয়র

নিজস্ব প্রতিবেদক | ঢাকা২৪ডটনেট:
দেশজুড়ে ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাসের বিস্তার রোধে মসজিদে গিয়ে নামাজ আদায় না করার নির্দেশনা দিয়েছে সরকার। তবে এরইমধ্যে গতকাল মঙ্গলবার গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র জাহাঙ্গীর আলম সিটি এলাকার মসজিদে গিয়ে নামাজ পড়তে কোনও বাধা নেই বলে ঘোষণা দেন। এর একদিনই পরই বুধবার নিজের দেয়া সেই ঘোষণা তুলে নেন তিনি।

মঙ্গলবার এক ভিডিও বার্তায় মেয়র জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘গাজীপুর সিটিতে মাত্র কয়েকটি এলাকায় করোনা ভাইরাস সনাক্ত হয়েছে। বাকিগুলো পাশের উপজেলাগুলোতে অবস্থান করছে। যেহেতু গাজীপুরের গার্মেন্টসগুলো খুলে দেয়া হয়েছে, তাই রমজান মাসে এখন আর মসজিদে অল্প সংখ্যক মুসল্লির জন্য সীমাবদ্ধ রাখার কোনও প্রয়োজন নেই।’

তিনি আরও বলেন, ‘শুক্রবারের জুমার নামাজ ও রমজানের তারাবির নামাজে মুসল্লিগণ অংশ নিতে পারবেন। এতে সিটি করপোরেশনের কোনো বাধা থাকবে না।’

মেয়রের এমন সিদ্ধান্তের পর এ নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়। বিশেষত করোনা ভাইরাস সংক্রমণের দিক থেকে ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জের পরেই গাজীপুরের অবস্থান। বুধবার পর্যন্ত ওই গাজীপুরে মোট ৩২০ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন বলে আইইডিসিআরের দেয়া তথ্যে জানা গেছে।

এমন পরিস্থিতিতে নিজের বক্তব্য প্রত্যাহার করে বুধবার মেয়র জাহাঙ্গীর আলম জানান, তিনি তার বক্তব্য থেকে সরে এসেছেন। গাজীপুর সিটিতেও সরকার ঘোষিত নির্দেশনাই মান্য করা হবে।

এদিকে করোনা পরিস্থিতিতে গোটা দেশেকে ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করে গত ৬ এপ্রিল দেশের সব মসজিদে বাইরে থেকে মুসল্লি প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে সরকার। সরকারি নির্দেশনায় বলা হয়, মসজিদে ইমাম-মুয়াজ্জিন ও খাদেমসহ সর্বোচ্চ ৫ জনের জামাত হবে। আর রোজার মাসে তারাবির নামাজে একসঙ্গে সর্বোচ্চ ১২ জন অংশগ্রহণ করতে পারবেন।

নিজের বক্তব্য প্রত্যাহার প্রসঙ্গে মেয়র জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘সরকার যে নীতিমালা দিয়েছে ওটাতে থাকলেই ভালো হবে। সরকারের যে বক্তব্য সেটাই আমার বক্তব্য। পরিবেশটা বলা যাচ্ছে না, গার্মেন্টস খুলে দিয়েছে। এ কারণে রিস্কে আছি।’

fb-share-icon35
fb-share-icon20

সময় বাচাঁতে ঘরে বসে কেনা-কাটা

Enjoy this blog? Please spread the word :)