শুক্রবার | ২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং |

মসজিদে বিস্ফোরণ: টনক নড়লো প্রশাসনের

ডেস্ক রিপোর্ট:
নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করতে অভিযান চালিয়েছে তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ। অভিযানে দুইশতাধিক মিটার অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন এবং গ্রাহকদের পাইপের লিকেজ সংস্কার করা হয়।

মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ৪নং ওয়ার্ডে হাউজিং এলাকায় এই অভিযান চালানো হয়। নাগরিক সমাজের অভিযোগের তিতাস গ্যাসের প্রায় দুইলাখ অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়।

তিতাস গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন ফতুল্লা জোনের ব্যবস্থাপক মো. রবিউল ইসলামের নেতৃত্বে এই অভিযান চালানো হয়। এসময় র‌্যাব-১১ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. জসিম উদদীন, ইন্সপেক্টর রবিউল ইসলামসহ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যা উপস্থিত ছিলেন।

চলমান কার্যক্রমের অংশ হিসেবে এই অভিযান চলছে জানিয়ে ফতুল্লা জোনের ব্যবস্থাপক মো.রবিউল ইসলাম বলেন, বেশ কিছু অবৈধ গ্যাস সংযোগ পেয়ে বিচ্ছিন্ন করা হয়। অভিযানের সময় গ্রাহকদের পাইপে লিকেজ হয়ে গ্যাস বের হচ্ছে অথচ কেউ আমাদের সেটি জানায়নি। এসব থেকেই মূলত দুর্ঘটনা ঘটে। এ ধরনের কার্যক্রম চলমান থাকবে।

স্থানীয়দের অভিযোগ, রাতের আঁধারে অবৈধ সংযোগ নেওয়া হয়। অবৈধভাবে গ্যাস সংযোগ নেয়ার কারণে বৈধ গ্রাহকরা গ্যাস ক্ষতিগ্রস্ত হয়। যে কোন দুর্ঘটনায় সবাইকেই মাসুল গুনতে হয়। পাইপের লিকেজ দিয়ে গ্যাস বের হচ্ছিল। অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করায় সময় তা সংস্কার করা হয়।

বিভিন্ন সময় অবৈধ সংযোগ বিভিন্ন করার সময় আইন-শৃঙ্খলার অবনতি ঘটি থাকে জানিয়ে র‌্যাব-১১’র ইন্সপেক্টর রবিউল ইসলাম বলেন, অভিযানে যাতে অবনতি না ঘটে সেটি দেখর জন্য আমরা তিতাস কর্তৃপক্ষকে সহযোগিতা করছি।

উল্লেখ্য, গত ৪ সেপ্টেম্বর নারায়নগঞ্জের তল্লা বায়তুস সালাত জামে মসজিদের গ্যাসের লিকেজ থেকে বিস্ফোরণে দগ্ধ হয়ে ৩১ জন নিহত হওয়ার ঘটনার জেলার সর্বত্র অবৈধভাবে সংযোগ দেওয়া গ্যাস লাইন সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার দাবি উঠে। স্থানীয় প্রভাবশালী ব্যক্তি এবং তিতাসের দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তা, কর্মচারী ও ঠিকাদারদের সহায়তায় এসব অবৈধ সংযোগ দেয়া হয় বলে অভিযোগ রয়েছে।

fb-share-icon35
fb-share-icon20

Enjoy this blog? Please spread the word :)