1. shahinit.mail@gmail.com : dhaka24 : ঢাকা টোয়েন্টিফোর
  2. arifturag@gmail.com : ঢাকা টোয়েন্টিফোর : ঢাকা টোয়েন্টিফোর
  3. sasujan83@gmail.com : ঢাকা টোয়েন্টিফোর : ঢাকা টোয়েন্টিফোর
  4. mdjihadcfm@gmail.com : ঢাকা টোয়েন্টিফোর : ঢাকা টোয়েন্টিফোর
শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০৬:৪০ অপরাহ্ন

শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে: ইসি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট:
  • প্রকাশিত | মঙ্গলবার, ২৯ ডিসেম্বর, ২০২০

স্থানীয় সরকারের পৌরসভায় প্রথম ধাপে সব জায়গায় শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনের (ইসি) জ্যেষ্ঠ সচিব মো. আলমগীর। আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে নিজ কার্যালয়ে সোমবার সন্ধ্যায় সাংবাদিকদের একথা বলেন তিনি।

সচিব বলেন, আমাদের দৃষ্টিতে ভোট খুব ভালো হয়েছে। কারণ আপনারে ক্যামেরায় যা দেখেছি। ভোটারদের উপস্থিতি অনেক বেশি। সকাল থেকে লাইন দিয়ে ভোটাররা ভোট দিচ্ছেন। আমাদের মাঠপর্যায়ের রিপোর্ট এবং আপনাদের (গণমাধ্যম) রিপোর্টের মধ্যে কোনো পার্থক্য দেখিনি। নির্ধারিত সময় চারটার পরও ভোটাররা লাইনে ছিল। সেই হিসেবে আমরা বলি নির্বাচনটা খুবই সাকসেসফুলি হয়েছে।

কত শতাংশ ভোট পড়েছে সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, শতাংশটা এখনো হয়নি। তবে মোটামুটি ৬০ শতাংশের নিচে হবে না। ৬০ শতাংশের নিচে কোথাও ভোট পড়েনি। ৬০, কোথাও ৭০, কোথাও ৮০ শতাংশ পর্যন্ত ভোট পড়েছে।

একটি পৌরসভায় রিটার্নিং কর্মকর্তার গাড়িতে আগুন, আরেকটিতে মেশিন ভাঙাভঙি হয়েছে এবং সাভারে একজন সাংবাদিককে লাঞ্ছনার বিষয়ে তিনি বলেন, সাংবাদিকের বিষয়টি আপনার কাছেই প্রথম শুনলাম। এই ধরণের যদি কোনো অভিযোগ থাকে তাহলে আমরা খোঁজ নিয়ে আপনাদের জানাতে পারবো। আর পঞ্চগড় জেলায় যিনি রিটার্নিং কর্মকর্তা ছিলেন তিনি যাচ্ছিলেন। সেখানে থাকা ভোটারদের পুলিশ সরে যেতে বলায় পুলিশের সাে হয়তো তখন কথা কাটাকাটি হয়েছে। সেখাােন উপস্থিত যারা ছিলেন তারা ইউএনও’র গাড়িতে আক্রমণ করেছেন। বিষয়টি লিখিত বিস্তারিত আকারে এখনো পাইনি। মৌখিকভাবে জেনেছি। লিখিত এতটুকু জানতে পেরেছি সেখানে আক্রামণ হয়েছিল, ওখানে একজন পুলিশ কর্মকর্তা আহত হয়েছেন। তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। আর চট্টগ্রামের শীতাকুণ্ডে ইভিএমে কিছু দুস্কৃতিকারিরা এসে ইভিএম কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা করেছিল। আবার কেউ বলেন সেখানে হাতাহাতির চেষ্টাও করেছেন। তখন মনিটর পড়ে গেছে বা ভেঙে গেছে। সেটি রিপ্লেস করেছি। কোনো সমস্যা হয়নি। নির্বাচন কন্টিনিউ করতে কোনো সমস্যা হয়নি। যারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে মামলা দিয়ে তারে বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

দুই তিনটা পৌরসভা নির্বাচনে সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে। তারপরও কি নির্বাচন ভালো হয়েছে বলবেন? সাংবাকিদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, হয়তো বাইরে হাতাহাতি হতে পারে। কিন্তু কেন্দ্রে বা যেখানে ভোট নেওয়া হয়, সেখানে কোনো সমস্যা হয়নি। এখন রাস্তাঘাটে যদি কেউ সমস্যা করে বা দূরে কেউ কোনো সমস্যা করে সেটি তো নির্বাচনে কোনো অসুবিধা হয়নি। তাই আমরা নির্বাচন সুষ্ঠুই বলবো। আর সেই জন্যই তো আইন শৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন করা হয়। বিদেশে তো আইন শৃঙ্খলা বাহিনী লাগে না। সেখানে এমন হাতাহাতি হয় না। হাতাহাতি মেটানোর জন্যই তো যথাযথ সময়ে সেখানে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী সেখানে গিয়েছে।

এ দায় আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর নাকি ইসির জানতে চাইলে তিনি বলেন, না, এটি আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর। দায় না, তাদের দায়িত্ব। আইন শৃঙ্খলা কোনো অবনতির চেষ্টা করলে তাহলে সেখানে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সস্যরা আছেন, সেখানে মেজিস্ট্রেট আছেন তারা ব্যবস্থা নেবেন।

নির্বাচনে ভোটকেন্দ্রের বাইরে কোনো ঘটনা ঘটলে তার দেখার দায়িত্ব কার? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর। গণ্ডগোল তো হতেই পারেই। চুরি হতেই পারেই। চুরি হওয়ার পর খেবেন চোরকে ধরা হয়েছে কি না, তার বিচার হয়েছে কি না, গণ্ডগোল করে দেখেই তো সেখানে র‌্যাব, বিজিবি, কোস্টগার্ড মোতায়েন করা হয়। গণ্ডগোল না করলে তো এসব দেওয়া হতো না। কোথাও গণ্ডগোল হলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নিলে সেটাকে দায় বলা যায়। আর যিনি ব্যবস্থা নেয় তাহলে তাকে ব্যর্থতা কিভাবে বলবেন?

খুলনার চালনা পৌরসভায় একজন প্রার্থী মারা গেছেন বিষয়টি নজরে আনতে তিনি বলেন, আমরা জেনেছি। ওই প্রার্থীর একজন এজেন্ট লিখিতভাবে প্রথম জানিয়েছেন ৪টা ২৫ এর দিকে যে তিনি হাসপাতালে মারা গেছেন। তিনি যে লিখিত জানিয়েছেন তার মধ্যে লেখা আছে মারা গেছেন ৩টা ৩২ মিনিটে। আর এখন আমরা জানতে পারলাম মেডিকেল সার্টিফিকেলে বলা হয়েছে ৩ টা ৫০ মিনিট। এটি পাওয়ার পর কমিশনে উপস্থাপন করা হবে। কমিশন এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত দেবে। আর যেহেতু ওখানে একজন প্রার্থী মারা গেছেন তাই আপাতত মেয়র পদে ফলাফল স্থগিত রাখতে বলা হয়েছে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, করোনার মধ্যে জীবন যেভাবে চলছে। নির্বাচনি জীবনও সেইভাবে চলবে। আপনারা আমেরিকায় দেখেছেন প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন, হাসপাতালে গিয়েছিলেন, তারপরও সেখানে নির্বাচন বন্ধ হয়নি, পিছিয়ে যায়নি। অতবড় একটা গণতান্ত্রিক দেশ, যারা আমাদের মডেল। তাদেরকে বাদ দিয়ে আমরা ভিন্ন কিছু অনুসরণ করবো না।

fb-share-icon35
56

আরো সংবাদ পড়ুন




© All rights reserved &copy | 2016 dhaka24.net
Theme Customized BY WooHostBD