1. shahinit.mail@gmail.com : dhaka24 : ঢাকা টোয়েন্টিফোর
  2. arifturag@gmail.com : ঢাকা টোয়েন্টিফোর : ঢাকা টোয়েন্টিফোর
  3. sasujan83@gmail.com : ঢাকা টোয়েন্টিফোর : ঢাকা টোয়েন্টিফোর
  4. mdjihadcfm@gmail.com : ঢাকা টোয়েন্টিফোর : ঢাকা টোয়েন্টিফোর
রবিবার, ২০ জুন ২০২১, ০১:৩৫ পূর্বাহ্ন

চীনা রকেটের টুকরোটি এ সপ্তাহে পৃথিবীতে পড়তে পারে: যুক্তরাষ্ট্র

ঢাকা টোয়েন্টিফোর
  • প্রকাশিত | শুক্রবার, ৭ মে, ২০২১

চীনা রকেটের অনিয়ন্ত্রিত ধ্বংসাবশেষের দিকে গভীর নজর রাখছে বলে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। ১৮ টন ভারি এ টুকরো এ সপ্তাহের মধ্যেই পৃথিবীতে আছড়ে পড়তে পারে বলে ধারণা করছে দেশটি। যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা বিভাগ জানিয়েছে, মার্কিন স্পেস কমান্ড রকেটের গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করছে। এটি শনিবার (৮ মে) নাগাদ পৃথিবীতে পুনঃপ্রবেশ করতে পারে। তবে এ ব্যাপারে এখনই নিশ্চিত কোনো দিন-তারিখ-সময় বলা সম্ভব নয় বলেও জানিয়েছে দেশটি। খবর বিবিসির।

এর আগে গত ২৯ এপ্রিল চীনের বৃহত্তম রকেট লং মার্চ ৫-বি চীনের হাইনান দ্বীপ থেকে উৎক্ষেপণ করা হয়েছিল। তিয়ানহে মডিউল নিয়ে এটি পৃথিবীর কক্ষপথের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দিয়েছিল। এই রকেটের একটি ধ্বংসাবশেষ অনিয়ন্ত্রিত অবস্থায় পৃথিবী প্রদক্ষিণ করছে এবং এটি বায়ুমণ্ডলের নিম্ন স্তরে ঢুকছে। এটি পৃথিবীতে আছড়ে পড়তে পারে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষামন্ত্রী লয়েড অস্টিন বলেন, ‘আমরা আশাবাদী, এটি এমন কোনো জায়গায় পড়বে যেখানে কারো কোনো ক্ষতি হবে না। আশা করি এটি কোনো সমুদ্র বা এরকম কোনো স্থানেই পড়বে’।

পেন্টাগন জানিয়েছে, এখন পর্যন্ত এটি পৃথিবীর কোন জায়গায় পড়বে তা জানা যায়নি। পৃথিবীতে প্রবেশের আগে তা বলা সম্ভব নয়। তবে এটি গোলার আঘাতে ধ্বংস করে দেওয়ারও কোনো পরিকল্পনা আপাতত নেই।

এ ব্যাপারে চীন এখনও কোনো আনুষ্ঠানিক মন্তব্য করেনি। তবে চীনের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম গ্লোবাল টাইমসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এটি কোনো আন্তর্জাতিক জলসীমায় পড়তে পারে। রকেটের এই ধ্বংসাবশেষ নিয়ে পশ্চিমারা অহেতুক ভয় ছড়াচ্ছে বলেও দাবি করা হয় প্রতিবেদনে। এতে বলা হয়, এ পরিস্থিতিতে উদ্বিগ্ন হওয়ার মতো কিছু নেই।

চীনের মহাকাশ বিশেষজ্ঞদের বরাত দিয়ে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়, পৃথিবীতে ফিরে আসার পথেই বেশিরভাগ রকেটের টুকরো পুড়ে গিয়ে খুব ছোট ছোট অংশে পরিণত হয়। মহাকাশ বিশেষজ্ঞ সং ঝংপিংয়ের বরাত দিয়ে গ্লোবাল টাইমস বলেছে, চীনের স্পেস মনিটরিং নেটওয়ার্ক এ বিষয়ে নিবিড়ভাবে নজর রাখবে এবং কোথাও কোনো ক্ষতির আশঙ্কা তৈরি হলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে’।

fb-share-icon35
56

আরো সংবাদ পড়ুন
© All rights reserved &copy | 2016 dhaka24.net
Theme Customized BY WooHostBD