1. shahinit.mail@gmail.com : dhaka24 : ঢাকা টোয়েন্টিফোর
  2. arifturag@gmail.com : ঢাকা টোয়েন্টিফোর : ঢাকা টোয়েন্টিফোর
পাসপোর্ট প্রত্যাশীদের ফোন নম্বর চুরি করে প্রতারণা অধিদপ্তরের মালির! - Dhaka 24 | Most Popular News | Breaking News | English | Bangla
November 30, 2022, 9:42 am

পাসপোর্ট প্রত্যাশীদের ফোন নম্বর চুরি করে প্রতারণা অধিদপ্তরের মালির!

Reportar Name
  • Update Time | Wednesday, November 10, 2021,

পাসপোর্ট প্রত্যাশীদের তথ্য ও মোবাইল নম্বর চুরি করে অপর দুই সহযোগীর কাছে সরবরাহ করতো অধিদপ্তরের মালি। এরপর পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চের এসআই সেজে আবেনদকারীদের ফোন করে তথ্য যাচাইয়ের নামে দাবি করে অর্থ, টাকা দিতে রাজি না হলে দেয়া হতো নেতিবাচক প্রতিবেদন দেয়ার হুমকি।

ঝামেলা এড়াতে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে টাকা দিয়ে দিচ্ছে অনেকে। এভাবে গত ছয় মাসেই প্রায় চার লাখ টাকা হাতিয়েছে তিন সদস্যের সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্র।

মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে এসআইকে টাকা তুলে দেন আবেদনকারী। কিন্তু ক’দিন পরে ফের স্পেশাল ব্রাঞ্চের তদন্ত কর্মকর্তা পরিচয়ে অন্য একটি মোবাইল ফোন নম্বর থেকে যোগাযোগ করেন আরেকজন। আবেদনকারীর বাসায় এসে যাচাই করেন তথ্য। তখন আগের ঘটনা জানালে, পাসপোর্ট-প্রত্যাশী বুঝতে পারেন, প্রতারক চক্রের খপ্পরে পড়েছিলেন তিনি।

ভুক্তভোগী মাহে আলম বলেন, ‘আমি ডিএসবির পরিচয় শুনে আর কোন কথা বলতে পারিনি। কিন্তু এরপর অফিসে এসে শুনি ভিন্ন কথা। তখন বুঝতে পারি যে একটি প্রতারণক চক্র আমাকে প্রতারিত করেছে।’

এরকম অনেক অভিযোগ পেয়ে তদন্তে নামে গোয়েন্দা পুলিশের সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইম বিভাগ। তথ্য-প্রযুক্তির সহায়তায় পাসপোর্ট অধিদপ্তরের মালি মফিজুল হক টুটুল, পাসপোর্ট অধিদপ্তরকেন্দ্রিক দালাল জুয়েল আহমেদ ও সম্মান শ্রেণির ছাত্র রাসেল হোসেন ইমনকে গ্রেপ্তার করার পর বেরিয়ে আসছে চাঞ্চল্যকর তথ্য।

প্রথমে পাসপোর্ট-প্রত্যাশীদের আবেদনপত্র চুরি করে অধিদপ্তরের মালি টুটুল। সেই কাগজ পাঠিয়ে দেয় অপর দুই সহযোগী জুয়েল ও ইমনের কাছে। তারপর স্পেশাল ব্রাঞ্চের এসআই সেজে আবেদনকারীদের ফোন করে তথ্য যাচাইয়ের নামে অর্থ হাতিয়ে নেয়া হয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ডিএমপির গোয়েন্দা বিভাগের (সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইম) উপ কমিশনার মুহাম্মদ শরীফুল ইসলাম বলেন, পাসপোর্ট-প্রত্যাশীরা যখন তাদের আবেদন ফর্ম জমা দেয় তখন এই জমা দেয়ার সময় কিছু ডকুমেন্ট তারা ডাস্টবিনে ফেলে দেয়, এটা না করে একেবারে নষ্ট করে ফেলতে হবে। যাতে এরপর সেগুলো বাইরের কেউ সংগ্রহ করতে না পারে। তাহলে আবেদনকারীরা এই প্রতারণার হাত থেকে রক্ষা পাবে।

পাসপোর্টের তথ্য যাচাইয়ের জন্য কেউ টাকা চাইলে পুলিশকে জানানোর পরামর্শ দিয়ে কর্মকর্তারা বলছেন, নাগরিকদের সচেতনতাই বন্ধ করে দিতে পারে প্রতারণার সুযোগ। এছাড়াও, পাসপোর্ট-প্রত্যাশীদের তথ্য চুরি ঠেকাতে অধিদপ্তরকে ব্যবস্থা নেয়ার সুপারিশ করেছে গোয়েন্দা পুলিশ।

ডিএমপির গোয়েন্দা বিভাগের (সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইম) যুগ্ম কমিশনার হারুন অর রশীদ বলেন, ‘সাধারন মানুষকে অনুরোধ করবো, কেউ প্রশাসনের লোক পরিচয় দিয়ে কোনকিছু দাবি করলে সেই প্রতারণায় পড়বেন না। সবকিছু যাচাইবাছাই করবেন, এবং এরকম কোন ঘটনা ঘটে থাকলে পুলিশকে অবহিত করবেন।’

More news
© All rights reserved &copy | 2016 dhaka24.net
Theme Customized BY WooHostBD